ডার্ক মোড
Thursday, 23 May 2024
ePaper   
Logo
মস্কোতে হামলা : দুই সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার

মস্কোতে হামলা : দুই সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মস্কোতে ভয়াবহ হামলায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে এ পর্যন্ত ২ সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার মস্কো থেকে ৩৭৯ কিলোমিটার দূরে ব্রায়ানস্ক শহরে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এএফপি জানিয়েছে, সন্দেহজনক একটি গাড়িকে তাড়া করে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের। গাড়িতে আরও লোকজন ছিল, তবে তারা পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে রাস্তার ধারে জঙ্গলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। তাদের সন্ধানে জঙ্গলে অভিযান শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে রুশ পুলিশ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর ক্রাসনোগরস্ক এলাকার ক্রোকাস সিটি হল অ্যান্ড শপিং সেন্টারে ভয়াবহ বন্দুক ও বোমা হামলায় অন্তত ৬০ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও ১৪৭ জন। ওই ভবনটির অডিটোরিয়ামে পিকনিক নামের একটি রুশ ব্যান্ডের কনসার্ট ছিল।

কনসার্ট হলটির ধারণক্ষমতা সাড়ে ৭ হাজার এবং সন্ত্রাসীরা যখন আক্রমণ শুরু করে তখন হলটি প্রায় পরিপূর্ণ ছিল। কনসার্ট শুরুর আগে দর্শনার্থীরা যখন আসন গ্রহণ করছেন, সে সময়ই ঘটে অতর্কিত বন্দুক হামলা। হামলার পর ভবনটিতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে।

মস্কোর আইনশৃঙ্খলা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে; কারণ আহতদের মধ্যে প্রায় ৬০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, পাঁচজন বন্দুকধারী হামলাতে অংশ নিয়েছিলেন। তাদের হাতে স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্রসহ অন্যান্য সামরিক অস্ত্র ছিল বলে মনে করা হচ্ছে।

হামলাকারীরা ওই হলের নিরস্ত্র নিরাপত্তাকর্মীকে হত্যা করে ভেতরে ঢুকে তাণ্ডব চালায়। এ সময় তারা ভেতর থেকে হলটি বন্ধ করে রাখে।

কনসার্ট হলের একেবারে ভেতরে ঢুকে সেখানে থাকা চেয়ারগুলোতে আগুন ধরিয়ে দেয় হামলাকারীরা। ওই আগুন পুরো ভবনে ছড়িয়ে পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন গোলাগুলির শব্দের পাশাপাশি ভবনে বোমা বিস্ফোরণের শব্দও শুনেছেন তারা।

হামলার কয়েক ঘণ্টা পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে এক পোস্টে স্বীকার করে বিবৃতি দেয় ইসলামিক স্টেট। সেই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘মস্কোতে আইএস যোদ্ধারা হামলা চালিয়ে শতাধিক মানুষকে হতাহত করেছে এবং ঘটনাস্থলে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে নিরাপদে তাদের ঘাঁটিতে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছে।’

তবে কী কারণে এই হামলা চালিয়েছে, তা স্পষ্ট করেনি আইএসএফ। হামলাকারীদের পরিচয়ও প্রকাশ করেনি।

ঘটনার পরপরই রাশিয়ার পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী ন্যাশনাল গার্ড অপরাধীদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছিল।

সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি ওয়ার্ল্ড

মন্তব্য / থেকে প্রত্যুত্তর দিন