ডার্ক মোড
Thursday, 23 May 2024
ePaper   
Logo
বৈশ্বিক সতর্কতা জারি যুক্তরাষ্ট্রের

বৈশ্বিক সতর্কতা জারি যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন সশস্ত্রগোষ্ঠী হামাসের সাথে ইসরায়েলের যুদ্ধ ঘিরে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় নিজ নাগরিকদের জন্য বৈশ্বিক সতর্কতা জারি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে এই সতর্কতা জারি করে বিশ্বজুড়ে মার্কিন নাগরিকদের সতর্কতার সঙ্গে চলাচলের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলছে, বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে উত্তেজনা, মার্কিন নাগরিক এবং স্বার্থের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী হামলা, বিক্ষোভ বা সহিংস কর্মকাণ্ডের সম্ভাবনা বৃদ্ধি পাওয়ায় নাগরিকদের জন্য এই বৈশ্বিক সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

বিদেশে মার্কিন নাগরিকদের ‘অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করার’ পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলে ওয়েবসাইটে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর। আল-কায়েদা নেতা আয়মান আল-জাওয়াহিরিকে ড্রোন হামলা চালিয়ে মার্কিন বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা হত্যা করার পর গত বছরের আগস্টে একই ধরনের সতর্কতা জারি করেছিল যুক্তরাষ্ট্র।

হামাসের সাথে যুদ্ধ চালিয়ে যেতে আরব বিশ্বের অন্যতম মিত্র ইসরায়েলে সাঁজোয়া যানের বিশাল চালান পাঠিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, মার্কিন সাঁজোয়া যানের চালান ইসরায়েলে পৌঁছেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে দেওয়া এক পোস্টে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো যানবাহন ‘যুদ্ধের সময় ক্ষতিগ্রস্ত যানবাহন প্রতিস্থাপনের জন্য (ইসরায়েলি সেনাবাহিনীতে) স্থানান্তর করা হচ্ছে।’

হামাসের সাথে ইসরায়েলের তীব্র যুদ্ধের মাঝে ইসরায়েলে সামরিক সহায়তা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম মিত্র ইসরায়েলে যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক সামরিক সহায়তার পরিমাণ গড়ে ৩ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে।

এর আগে মঙ্গলবার পেন্টাগন জানায় ৭ অক্টোবর হামাসের সাথে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত ইসরায়েলে অস্ত্র ও সরঞ্জামের পাঁচটি চালান পাঠানো হয়েছে। হামাসের সঙ্গে চলমান যুদ্ধে ইসরায়েলের প্রতি সমর্থন ও সংহতি জানাতে বুধবার সকালের দিকে তেল আবিব সফরে যান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বিশাল নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে বিমান থেকে নেমে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ও প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজগকে আলিঙ্গন করেন তিনি।

পরে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ও তার সরকারের যুদ্ধকালীন জরুরি মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। এ সময় হামাসের সাথে যুদ্ধে ইসরায়েলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের দৃঢ় সমর্থন প্রকাশ করেন তিনি। একই সঙ্গে ইসরায়েলে সামরিক সহায়তা বাড়ানোর ঘোষণা দেন তিনি।

গাজায় ইসরায়েলের অব্যাহত বিমান হামলায় বেসামরিক মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বেসামরিক প্রাণহানি সত্ত্বেও ইসরায়েলে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সহায়তার প্রতিবাদে বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের কর্মকর্তা জোস পল পদত্যাগ করেছেন। তিনি বলেছেন, অব্যাহত সামরিক সহায়তার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রকে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলায় ইসরায়েল সবুজ সংকেত দিচ্ছে।

মন্তব্য / থেকে প্রত্যুত্তর দিন