ডার্ক মোড
Sunday, 19 May 2024
ePaper   
Logo
ঈদের দ্বিতীয় দিনও বাস টার্মিনালে বাড়ি ফেরা মানুষের ঢল

ঈদের দ্বিতীয় দিনও বাস টার্মিনালে বাড়ি ফেরা মানুষের ঢল

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঈদের দ্বিতীয় দিনও বাড়ি ফিরছেন ঘরমুখো মানুষ। এবারের ঈদের ছুটিতে যারা বাড়ি যেতে পারেননি, তারা আজ ভিড় জমাচ্ছেন বাস টার্মিনালগুলোতে।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সরেজমিনে মহাখালী বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, ঈদের দ্বিতীয় দিনেও ঘরমুখো মানুষের ভিড় করেছেন সেখানে। গতকালের চেয়ে আজ বাস টার্মিনালে মানুষের সংখ্যা বেশি। খোলা রয়েছে অধিকাংশ বাসের কাউন্টার। যাত্রীরা লাইন ধরে টিকিট সংগ্রহ করছেন, কেউবা করছেন বাসের জন্য অপেক্ষা।

ঈদের ছুটি শুরু হওয়ার পর নানা কারণে যারা বাড়ি ফিরতে পারেননি, তারা আজ যাত্রা করছেন। তবে ঢাকার বাইরে থেকে যাত্রীদের ফিরে আসার হার অনেক কম লক্ষ্য করা গেছে।

সিলেটগামী যাত্রী অভি মাহমুদ বলেন, ব্যক্তিগত কারণে ঢাকাতেই ঈদ পালন করেছিলাম। তাই আজ বাড়ি যাচ্ছি। রাস্তায় এখন গাড়ির চাপ কম থাকায় আশা করছি দ্রুত যেতে পারব।

পরিবার সমেত বগুড়া যাবেন মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, ঈদের আগে তো রাস্তাঘাটে ঝামেলা থাকে, পরিবার নিয়ে যাওয়াটা কষ্টকর। তাই আজ যাচ্ছি। 

কিশোরগঞ্জগামী যাত্রী ফেরদৌস বলেন, ঈদের দিন ডিউটি করতে হয়েছে, বেতনও পেয়েছি গতকাল। আজ ছুটি পেয়ে বাড়িতে যাচ্ছি।

নিউমার্কেটে কাপড়ের দোকানে চাকরি করেন মাইনুল ইসলাম। তিনি বলেন, ঈদের আগের দিন প্রায় মাঝরাত পর্যন্ত ডিউটি করতে হয়েছে। শরীর ক্লান্ত থাকায় ঈদের দিন রেস্ট নিয়ে আজ বাড়ি যাচ্ছি।

আবার কেউ কেউ ভ্রমণের উদ্দেশ্যেও ঢাকা ছাড়ছেন। শ্রীমঙ্গলগামী যাত্রী সাইফুল ইসলাম সাইফ বলেন, ঈদ ঢাকাতেই কাটিয়েছি, আজ শ্রীমঙ্গলে ঘুরতে যাচ্ছি। দু-তিনদিন কাটিয়ে তারপর ঢাকায় ফিরব।

তবে ঈদের দিনের মতো আজও অভিযোগ মিলেছে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার। বিশেষত ময়মনসিংহ-নেত্রকোণা রুটে নির্ধারিত ভাড়ার চাইতে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা অতিরিক্ত নেওয়া হচ্ছে। বাস সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঢাকায় ফেরার সময় বাস খালি ফেরে বলে ভাড়া কিছুটা বেশি নেওয়া হচ্ছে।

যাত্রী আবুল হোসেন বলেন, এসব বাসে কোনো টিকিট নেই, ডেকে ডেকে যাত্রী তুলছে। যেটা স্বাভাবিক ভাড়া, তার থেকে ২০০-৩০০ টাকা বেশি চাচ্ছে। দামাদামি করলে অল্প কিছু কমায়।

মন্তব্য / থেকে প্রত্যুত্তর দিন