ডার্ক মোড
Sunday, 21 April 2024
ePaper   
Logo
পাইকগাছায় খ্রীষ্টান ধর্মালম্বীদের বড়দিন উদযাপিত

পাইকগাছায় খ্রীষ্টান ধর্মালম্বীদের বড়দিন উদযাপিত

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি

পাইকগাছায় উৎসব মূখর পরিবেশে খ্রীষ্টান ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বড়দিন উদযাপিত হয়। ২৪টি মিশনে বড়দিন উদযাপিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে মিশনগুলোতে ৩ দিন ব্যাপি নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

উপজেলার ক্যাথলিক ও ব্যাপটিষ্ট সহ ২৪টি মিশনেওচার্জে সরকারিভাবে ৫শ কেজি করে চাল অনুদান প্রদান করা হয়েছে। ৩ দিন ব্যাপি অনুষ্ঠান মালার মধ্যে রয়েছে, জন্ম তিথি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অন্যতম। ২৫ ডিসেম্বর শনিবার প্রথম প্রহরে খ্রীষ্টযাগের মধ্য দিয়ে বড়দিনের শুভ সূচনা করা হয়। পৌরহিত্য করেন রেভা ফাদার ফিলিপ মন্ডল।

প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও উপজেলা সদরের ক্যাথলিক খ্রীষ্টান মিশনে নানা আয়োজন করা হয়েছে।আল্পনা দিয়ে সাজানো হয়েছে প্রতিটি বাড়ির আঙিনা। গীর্জা থেকে খ্রিস্টান বাড়ি সবখানেই চোঁখ ধাঁধানো আলোর ঝলকানি। বাড়িগুলোর সামনে সাজানো হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি। অতিথি আপ্যায়নের জন্য বাড়িতে বাড়িতে তৈরি করা হয়েছে রকমারি পিঠা। গির্জা ও পল্লিগুলোকে সাজানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ঝলমলে আলোকসজ্জায়।

গির্জার ভেতরে দৃষ্টিনন্দন ডিসপ্লের পাশাপাশি প্রাঙ্গণে কুঁড়েঘর নির্মাণ করা হয়েছে। তাতে রাখা হয়েছে মাতা মেরির কোলে যিশুখ্রিস্টের মূর্তি।ঘরে ঘরে তৈরি করা হয়েছে গোশালা। শিশু ও বড়দের জন্য কেনা হয়েছে নতুন নতুন পোশাক। গত ২৪ ডিসেম্বর মধ্যরাত থেকে শুরু হয়েছে বড়দিনের আনুষ্ঠানিকতা।

মধ্যরাতে বড় ঘণ্টা বাজিয়ে প্রভু যীশুর ভোজ ও আলেলুইয়া গানের মাধ্যমে শুরু হয় প্রার্থনা। নিজের ও পরিবারের কল্যাণ কামনায় প্রভু যীশুর কাছে প্রার্থনা করেছেন তারা। প্রার্থনা শেষে সকলে কীর্তন গানের মধ্য দিয়ে ঘরে তৈরি গোশালাগুলো পরিদর্শন করেছেন। বড়দিন উপলক্ষে ক্যাথলিক মিশন মাঠে ৩দিন ব্যাপি চলবে মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানমালা।

এছাড়া উপজেলার গড়ইখালী, চাঁদখালী, লস্কর,গদাইপুর ও হরিঢালী ইউনিয়নের স্ব স্ব গীর্জায় ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনায় উদযাপিত হচ্ছে বড়দিন। পাইকগাছা মিশনের মাঠে বসেছে মেলা। মিশনের সামনে স্থাপিত পানির ফোয়ারা নজর কেড়েছে দর্শনার্থীদের। টানা কয়েক বছর পর উৎসবমূখর পরিবেশে ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করতে পেরে খুশির আমেজ বিরাজ করছে খ্রীষ্টান ধর্মালম্বীদের মাঝে। খ্রীষ্টান এসোসিয়েশনের পাইকগাছা-কয়রার সভাপতি আন্দ্রীয় ডি রোজারিও জানান, অত্র এলাকার সবখানেই উৎসবমূখর পরিবেশে বড়দিন উদযাপন হচ্ছে। আশা করছি ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত গৃহীত সকল অনুষ্ঠান মালা ভালভাবেই সম্পন্ন হবে।

পাইকগাছা ক্যাথলিক মিশন সভাপতি আনন্দ মন্ডল বলেন, বড়দিনের শিক্ষায় আলোকিত হয়ে উঠবে সমাজ। সব জরা পেছনে ফেলে শান্তিময় এক পৃথিবীর প্রার্থনা থাকবে এবারের বড়দিনে। পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউর রহমান জানান, বড় দিনকে ঘিরে সর্বাত্মক নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি গীর্জায় পুলিশ পাহারা থাকবে ও টহল পুলিশও থাকবে। আশা করি নির্বিঘ্নে বড় দিনের উৎসব সম্পন্ন হবে।

মন্তব্য / থেকে প্রত্যুত্তর দিন